কিভাবে ওয়েবসাইটের জন্য উপযুক্ত Domain Name সিলেক্ট করতে হয়?

আপনার ব্লগিং যাত্রা শুরু করার জন্য ডোমেইন নাম সিলেক্ট করা দরকার? ডোমেইন নাম নির্বাচন একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ যা আপনার ব্লগের ভবিষ্যতের যাত্রা সহজ করার জন্য। একটি আকর্ষণীয় এবং মনে রাখা সহজ নাম আপনার ব্লগকে অনলাইনে আলাদা করে তুলতে সাহায্য করবে।

কিভাবে ব্লগের জন্য উপযুক্ত Domain Name নির্বাচন করতে হয়?
কিভাবে ব্লগের জন্য উপযুক্ত Domain Name নির্বাচন করতে হয়

ওয়েলকাম টু Infoportalbd.com  আজকের এই ব্লগ পোস্টে, আমি আপনাকে একটি কার্যকর ডোমেইন নাম নির্বাচন করার জন্য একটি ধাপে ধাপে আইডিয়া প্রদান করব। আমার কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস এবং কৌশলও শেয়ার করব যা আপনাকে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করবে।

ডোমেইন বলতে কি বুঝায় (What Is Domain)

ইন্টারনেটের বিশাল জগতে, আপনার ওয়েবসাইটকে আলাদা করে তোলার জন্য একটি ইউনিক পরিচয় প্রয়োজন। সেই পরিচয়ই হলো ডোমেইন নাম। এটি একটি সহজে মনে রাখার ঠিকানা যা মানুষ ব্রাউজারে টাইপ করে আপনার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারবে।

ডোমেইন নাম হলো আপনার ওয়েবসাইটের ইউনিক একটি ঠিকানা। এটি একটি সহজে মনে রাখার নাম যা মানুষ ব্রাউজারে টাইপ করে আপনার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারে।

Domain name Domain name

সহজ কথায় বলতে গেলে, ইন্টারনেট হলো বিশাল মহাসাগর, যেখানে প্রতিটি ওয়েবসাইট একটি দ্বীপ। আপনার দ্বীপটি খুঁজে পেতে, প্রয়োজন একটি নির্দিষ্ট ঠিকানা। আর সেই ঠিকানাই হলো ডোমেইন নাম

উদাহরণস্বরূপ:

আর প্রত্যেক ডোনেইন নাম একটির থেকে আরেকটি আলাদা বা ইউনিক হয়ে থাকে। যেমন আমাদের ওয়েবসাইটের ডোমাইন নাম Infoportalbd.Com আর এই নামে অন্য কেউ ডোনেইন নাম রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে না।

ডোমেইন নাম দুটি অংশে গঠিত:

  1. টপ-লেভেল ডোমেইন (TLD): এটি ডোমেইন নামের শেষ অংশ, যেমন “.com”, “.org”, “.bd”। TLD বিভিন্ন ধরণের প্রতিষ্ঠান বা সংস্থাকে নির্দেশ করে।
  2. ডোমেইন নাম: এটি ডোমেইন নামের প্রথম অংশ, যেমন “infoportalbd”। ডোমেইন আপনার ওয়েবসাইটের বিভিন্ন বিভাগ বা উপ-সাইটকে নির্দেশ করতে ব্যবহার করা হয়।

ডোমেইন নাম নির্বাচন করার সময়, TLD এবং ডোমেইন উভয়ই বিবেচনা করা গুরুত্বপূর্ণ। আপনার নির্বাচিত TLD আপনার ওয়েবসাইটের ধরণ এবং উদ্দেশ্য প্রতিফলিত করা উচিত, এবং আপনার ডোমেইনগুলি স্পষ্ট এবং সংক্ষিপ্ত হওয়া উচিত।

সঠিক ডোমেইন নির্বাচন করার নিয়ম

আপনার ওয়েবসাইট তৈরির যাত্রা শুরু করার আগে, একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে হবে – আপনার ডোমেইন নাম কী হবে? মনে রাখবেন, ডোমেইন নাম আপনার ওয়েবসাইটের অনলাইন পরিচয়। এটিই হলো ঠিকানা যা লোকেরা তাদের ব্রাউজারে টাইপ করে আপনার সাইটে পৌঁছাবে।

সঠিক ডোমেইন নাম নির্বাচন করা আপনার ওয়েবসাইটের সাফল্যের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। একটি ভালো ডোমেইন নাম মনে রাখা সহজ, আপনার ব্র্যান্ডের সাথে প্রাসঙ্গিক এবং SEO-ফ্রেইন্ডি।

এখন আপনাকে সঠিক ডোমেইন নির্বাচন করার জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ নিয়ম সম্পর্কে জানাবো।

Step 1: আপনার ব্লগের বিষয়বস্তু নির্ধারণ করুন (Niche Select)

আপনার ডোমেইন নাম নির্বাচন করার আগে, আপনার ব্লগ কিসের বিষয়ে হবে তা স্পষ্টভাবে বোঝা গুরুত্বপূর্ণ। আপনি কি রান্নার ধারণা শেয়ার করবেন? ভ্রমণের অভিজ্ঞতা লিখবেন? নাকি প্রযুক্তিগত টিপস এবং টিপ্স শেয়ার করবেন?

আপনার ব্লগের বিষয়বস্তু সম্পর্কে একটি স্পষ্ট ধারণা থাকলে আপনাকে এমন একটি ডোমেইন নাম বেছে নিতে সাহায্য করবে যা প্রাসঙ্গিক এবং মনে রাখা সহজ।

Step 2: Domain Name সঠিক বানানের রাখা

ডোমেইন নাম নির্বাচন একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত যা আপনার ওয়েবসাইটের ভবিষ্যতকে সমস্যাতে ফেলতে পারে। ভুল নামে ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করার ফলে বেশ কিছু নেতিবাচক প্রভাব দেখা দিতে পারে, যা আপনার ওয়েবসাইটের সাফল্যের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে।

কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় মনে রাখবেন:

  • ব্র্যান্ডিং: ভুল নাম আপনার ব্র্যান্ডের পরিচিতি নষ্ট করতে পারে এবং বিশ্বাসযোগ্যতা কমিয়ে দিতে পারে।
  • SEO: ভুল নাম SEO-তে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। কারণ সার্চ ইঞ্জিন ভুল নামকে সঠিক বানানের সাথে মেলে না।
  • ব্যবহারকারী অভিজ্ঞতা: ভুল নাম মনে রাখা কঠিন হতে পারে, যার ফলে ব্যবহারকারীরা আপনার ওয়েবসাইট খুঁজে পেতে বিভ্রান্ত হতে পারে এবং হতাশ হতে পারে।
  • দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব: ভুল নামের ফলে ভবিষ্যতে ডোমেইন নাম পরিবর্তন করতে হতে পারে, যা আরও জটিলতা হবে।

উদাহরণ:

ধরুন আপনার ওয়েবসাইটটি খবর প্রকাশের জন্য। আপনি যদি “khoboraseporun.com” বা “ekhonnernewz.com” এর মতো দীর্ঘ এবং জটিল নাম ব্যবহার করেন, তাহলে ব্যবহারকারীদের মনে রাখা কঠিন হবে এবং তারা আপনার ওয়েবসাইট খুঁজে পেতে বিভ্রান্ত হতে পারে।

কিন্তু আপনি যদি “Earlytime.com” বা “ItTips.com” এরকম  নাম এর মত ডোমেইন নেন তাহলে ভালো হবে।

মনে রাখবেন:

ডোমেইন নাম আপনার ওয়েবসাইটের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। সঠিক ডোমেইন নাম নির্বাচন করে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের সাফল্যের সম্ভাবনা অনেক বৃদ্ধি করতে পারেন।

ভুল নামের ফাঁদ এড়িয়ে চলুন এবং আপনার ওয়েবসাইটের জন্য একটি শক্তিশালী এবং স্মরণীয় ডোমেইন নাম নির্বাচন করুন।

Step 3: ছোট এবং আকর্ষণীয় ডোমেইন নাম

আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের জন্য ডোমেইন নাম নির্বাচন একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত। কারণ এটি আপনার অনলাইন এর ঠিকানা ভিত্তি হিসেবে কাজ করবে এবং দীর্ঘমেয়াদে আপনার ব্র্যান্ডিং ও সফলতার উপর প্রভাব ফেলবে।

একটি ছোট এবং আকর্ষণীয় ডোমেইন নাম নির্বাচন করা খুব গুরুত্বপূর্ণ যখন আপনি আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের জন্য। যা সহজেই মনে রাখা যায় এবং আপনার ভিজিটরদের ব্রাউজারে টাইপ করতে সহজ মনে হয়।

একটি User Friendly ডোমেইন নাম নির্বাচন করুন যেটি অনেক বড় না এবং যেটি মনে রাখা সহজ। যাতে করে আবার আপনার আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগে পুনরায় ফিরে আসতে পারেন।

Step 4: ফ্রী এক্সটেনশন ডোমেইন থেকে বিরত থাকা

ফ্রি জিনিসের কোয়ালিটি খুব ভালো থাকেনা এবং ফিউচারে ফ্রি জিনিস নিয়ে খুব একটা দাম পাওয়া সম্ভব হয় না। ঠিক তেমনি, আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের জন্য ফ্রি এক্সট্রানশনের ডোমেইন নাম দিয়ে আপনি কখনোই ওয়েবসাইট জনপ্রিয় করতে পারবেন না।

আর যদি আপনি ফ্রি ডোমেইন এমন এক্সটেনশন দিয়ে আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগ তৈরি করেন, তাহলে খুব কোয়ালিটিফুল বা প্রফেশনাল ওয়েবসাইট বা ব্লগ বানাতে পারবেন না।

এর জন্য সবসময় চেষ্টা করবেন যে, ফ্রি ডোমেইন এক্সটেনশন গুলো দিয়ে শুরু না করা। আপনার ব্লগের বা ওয়েবসাইটের জন্য সব সময়ে প্রফেশনাল একটি ডোমেইন নাম নির্বাচন করুন।

নিম্নের ফ্রি ডোমেইন এক্সটেনশন দেওয়া হলো যা ব্যবহার না করাই ভালো গুলো হলো:

  • .tk
  • .ml
  • .gq
  • .ga

এই ফ্রি ডোমেইন এক্সটেনশন গুলো দিয়ে আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগ তৈরি করার জন্য অবশ্যই বিরত থাকুন।

Step 5: Keyword এর সাথে মিল রেখে Domain

একটি ভাল ডোমেইন নাম কেবল মনে রাখা যায় এমন না এবং বরং এটি আপনার ব্লগের বা ওয়েবসাইটের বিষয়বস্তুও জানাতে সাহায্য করে। আরও গুরুত্বপূর্ণভাবে, এটি আপনার লক্ষ্যিত ভিজিটরদের কাছে আপনার ওয়েবসাইট সহজে খুঁজে পেতে সাহায্য করে।

এখানে keyword এর সাথে মিল রেখে ডোমেইন নির্বাচনের কিছু গুরুত্বপূর্ণ দিক তুলে ধরা হলো:

1. প্রাসঙ্গিকতা: আপনার ডোমেইন নামটি আপনার ব্লগের বিষয়বস্তুর সাথে স্পষ্টভাবে প্রাসঙ্গিক হওয়া উচিত। এটি সম্ভাব্য পাঠকদের সহজেই বুঝতে সাহায্য করবে যে আপনার সাইটটি তাদের জন্য প্রাসঙ্গিক কিনা।

উদাহরণস্বরূপ, যদি আপনার ব্লগ প্রযুক্তি সম্পর্কে হয়, তাহলে “Techinfo.com” এর মতো একটি ডোমেইন নাম “xyz123.com” এর চেয়ে বেশি উপযুক্ত হবে।

2. স্পষ্টতা: আপনার ডোমেইন নামটি স্পষ্ট এবং বোঝার সহজ হওয়া উচিত। এটি এমন কোনও শব্দ বা বাক্যাংশ এড়িয়ে চলুন যা বিভ্রান্তিকর বা ব্যাখ্যা করা কঠিন হতে পারে। লক্ষ্য করুন যে আপনার ডোমেইন নামটি ১৫ অক্ষরের নিচে রাখুন।

3. মনে রাখা যায় এমন: একটি ভাল ডোমেইন নাম মনে রাখা যায় এমন এবং সহজে বানান করা যায়। এটি এমন কিছু হওয়া উচিত যা লোকেরা সহজেই মনে রাখতে এবং অনলাইনে খুজতে করতে পারে।

4. জনপ্রিয় কিওয়ার্ড ব্যবহার করুন: আপনার ব্লগের সাথে প্রাসঙ্গিক জনপ্রিয় শব্দ এবং কিওয়ার্ডগুলি অন্তর্ভুক্ত করে আপনার সার্চ ইঞ্জিন র‌্যাঙ্কিং উন্নত করতে সাহায্য করতে পারে। তবে, “keyword stuffing” এড়িয়ে চলুন, কারণ এটি আপনার র‌্যাঙ্কিংকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে।

5. দীর্ঘমেয়াদী চিন্তা করুন: আপনার ডোমেইন নামটি এমন কিছু হওয়া উচিত যা আপনি দীর্ঘমেয়াদে ব্যবহার করতে পারেন। আপনি যদি পরে আপনার ব্লগের ফোকাস পরিবর্তন করার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে এমন একটি নাম নির্বাচন করুন যা নমনীয় এবং বিভিন্ন বিষয়বস্তুর সাথে মানানসই হয়।

SSCResult2024.com এর থেকে SSCResult.com অনেক বেশি ভালো হবে।

মনে রাখবেন: আপনার ডোমেইন নামটি আপনার ওয়েবসাইটের পরিচয়ের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এটি এমন কিছু হওয়া উচিত যা আপনার ভিজিটরদের মনে রাখতে সাহায্য করবে।

Step 6: ডোমেইনে হাইফেন ব্যবহার না করা

আর একটি বিষয় খেয়াল রাখবেন, যখন আপনার ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করবেন, তখন ডোমেইনের ভিতরে কোনো হাইফেন () ব্যবহার করবেন না। এতে করে আপনার ওয়েবসাইট এবং এসইওর জন্য খারাপ প্রভাব ফেলবে।

কারণ, কোন ভিজিটর চাইবে না যে কোন ডোমেইনের ভিতরে হাইফেন ব্যবহার করে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে। এ বিষয়টি অনেকের জন্য বিরক্তিকর হতে পারে।

যেমন ধরুন, আপনার একটি ওয়েবসাইট বা ব্লগসাইট আছে এবং সেই ওয়েবসাইট বা ব্লগের নাম এরকম: Bangla-it-post.com বা Techtune-bd.com।

এরকম ডোমেইন নাম কোন ভিজিটর মনে রাখতে পারবে না। কেননা একটি ডোমেইনের সাথে হাইফেন ব্যবহার করে ব্লগ সাইট করা মানে অনেকটা কঠিন পথে পাড়ি দেয়ার মতো।

এরকম ডোমেইনের নাম দিয়ে ব্লগ সাইট অথবা ওয়েবসাইট জনপ্রিয় করতে অনেক সময় চলে যাবে। সেজন্য অবশ্যই চেষ্টা করবেন যে আপনার ডোমেইনের ভিতরে কোনো রকম হাইফেন ব্যবহার না করা।

Step 7: নাম্বার যুক্ত ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন না করা

ডোমেইনের সাথে নাম্বার যুক্ত করে ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করা একটি বোকামির কাজ। কারণ অনেকেই চাইবে না যে ডোমেইনের সাথে আবার নম্বর যুক্ত করে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে।

ভিজিটররা অবশ্যই চাইবে খুব সহজে একটি ওয়েবসাইট বা ব্লগে প্রবেশ করতে, কোনো রকম হাইফেন অথবা নম্বর ব্যবহার না করে।

কারণ অনেক ভিজিটর আপনার ডোমেইনের হাইফেন অথবা নাম্বার মনে রাখতে সক্ষম নয়। সেজন্য আপনাকে ইউনিক বা একটি ছোট নাম বেছে নিতে হবে।

যেমন ধরুন, আপনার ডোমেইনের নাম হল Banglatips247.com বা banglaOnline4345.com। এখন একটি বিষয় খেয়াল করুন। কেউ কি চাইবে বা কোন ভিজিটর কি পারবে এই ডোমেইন নামগুলো মনে রেখে পরবর্তীতে আবার ভিজিট করতে?

কোন ভিজিটর এই ধরনের ডোমেইন নাম মনে রাখতে সক্ষম হবে না, অথবা পরবর্তীতে ভিজিট করার জন্য পুনরায় টাইপ করতে ইচ্ছা হবে না কারণ এত বড় নাম সাথে নাম্বার যুক্ত করা সম্ভব না।

কিভাবে ডোমেইন নাম সিলেক্ট করবেন?

ডোমেইন নাম সিলেক্ট করা একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ, যা আপনার ওয়েবসাইটের পরিচিতি এবং সফলতা নির্ধারণে সহায়ক।

ধরুন, আপনার ওয়েবসাইটটি এডুকেশন রিলেটেড যেখানে আপনি বিভিন্ন পরীক্ষার রেজাল্ট, ফরম ফিলআপ এবং বিভিন্ন চাকরির ইনফরমেশন শেয়ার করবেন। তাহলে সে অনুযায়ী আপনার ওয়েবসাইটের নাম হতে পারে এরকম:

  • Studyinfo.com
  • jobsnotice.com
  • Examresult.com

ঠিক তেমনি, আপনি যদি প্রযুক্তি বিষয় অথবা বিভিন্ন টপিক নিয়ে লেখালেখি করেন, সে অনুযায়ী আপনার ওয়েবসাইটের ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করে নিবেন। উদাহরণস্বরূপ:

  • TechTalks.com
  • GadgetGuide.com
  • CodeMaster.com
  • DigitalTrends.com

আমাদের শেষ কথা :

ডোমেইন নাম একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, যা আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটকে ভিজিটর এবং গুগলের মাঝে জনপ্রিয় করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

এজন্য অবশ্যই চেষ্টা করবেন একটি ভালো, ইউনিক এবং ছোট আকর্ষণীয় ডোমেইন নাম রেজিস্ট্রেশন করার জন্য। এতে আপনার ওয়েবসাইটটি খুব সহজে ভিজিটরদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারবে।

আমাদের আর্টিকেল যদি আপনার বিন্দুমাত্র ভালো লেগে থাকে, তবে নিয়মিত আমাদের ব্লগ সাইটটি ভিজিট করবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top